Breaking News
Home / জানা অজানা / ডিপজলের সর্বশেষ অবস্থা দেখেন বুক ফেটে কান্না পাবে
Loading...

ডিপজলের সর্বশেষ অবস্থা দেখেন বুক ফেটে কান্না পাবে

সুস্থ হয়ে উঠছেন ঢাকাই ছবির খলঅভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল। গত ১৯ সেপ্টেম্বর হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হলে ল্যাবএইড হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে নিয়ে যাওয়া হয় সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে। এখন সেখানেই চিকিৎসা চলছে এ অভিনেতার।

শুক্রবার ডিপজলকন্যা ওলিজার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে বাবার অবস্থা ভালোর দিকে রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে ওলিজা বলেন, ‘বাবার সুস্থতার বিষয়ে চিকিৎসকরা আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। তারা বলেছেন আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। তিনি সুস্থ হয়ে উঠছেন। তার অবস্থা আগের চেয়ে বেশ ভালো।’

এছাড়াও প্রয়োজনীয় চিকিৎসা শেষে শিগগিরই দেশে ফিরবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি দেশবাসীর কাছে বাবার জন্য দোয়াও চেয়েছেন ওলিজা।

প্রসঙ্গত, ১৯ সেপ্টেম্বর বিকালে হৃদরোগে আক্রান্ত হন ডিপজল। তাকে দ্রুত রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে নেয়া হলে ডাক্তাররা জানান তার ফুসফুসে পানি জমেছে।

এরপর তাকে করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে সিঙ্গাপুর নেয়া হয়। সিঙ্গাপুর ডিপজলের সঙ্গে তার স্ত্রী জবা ও মেয়ে ওলিজা মনোয়ারও রয়েছেন।

প্রতিদিন আমাদের সমাজে কত না নানান ঘটনা ঘটে জায় ঘটে যাওয়া সব গুলোর খবর কি আমরা জানতে পারি ? আমরা আপনাদের সামনে নানা রকম কিছু তুলে ধরবো।

পরবর্তী আপডেট পেতে পেজে লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করে আমাদের সাথেই থাকবেন।

বি: দ্র : ই্উটিউব থেকে প্রকাশিত ভিডিওর দায় সম্পুর্ন ই্উটিউব চ্যানেল ওনারের সেখানে বাংলা টপিক কোন ভাবে সংশ্লিস্ট নয় এবং দায় নিবেনা । ভিডিওটির উপর কারও আপত্তি থাকলে তা অপসারন করা হবে। আমাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য শুধু সামাজিক সচেতনা।

দৃষ্টিশক্তি ও স্মৃতিশক্তি ভালো রাখতে এই ফলটা রোজ একটি করে খান, বলছেন গবেষকরা

শরীরকে সুস্থ রাখতে, শরীরের প্রয়োজনীয় ঘাটতি পূরণ করতে আমরা অনেক কিছুই খেয়ে থাকি। প্রত্যেক প্রাপ্তবয়ষ্ক মানুষের প্রত্যেকদিন একটি করে অ্যাভোক্যাডো অবশ্যই খাওয়া দরকার। এমনটাই জানাচ্ছেন গবেষকরা।

সম্প্রতি একটি সমীক্ষায় প্রকাশ হয়েছে যে, অ্যাভোক্যাডো রয়েছে এমন কিছু উপকারী উপাদান, যা আমাদের চোখ ভালো রাখে এবং স্মৃতিশক্তি উন্নত করতে সাহায্য করে। যাঁদের বয়স ৫০ বছরের বেশি, এমন ৪০ জন মানুষের উপর একটি পরীক্ষা করা হয়। তাঁদের টানা ছ’মাস প্রত্যেকদিন একটি করে তাজা অ্যাভোক্যাডো খাওয়ানো হয়। দেখা যায়, প্রত্যেকের চোখের কগনিটিভ ফাংশন অনেক বেশি উন্নত হয়েছে। এবং ২৫ শতাংশ বেড়েছে চোখের লুটেন লেভেল। এই লুটেন লেভেল বৃদ্ধিতে শুধুমাত্র যে দৃষ্টিশক্তিই উন্নত হয়েছে, তা নয়, শক্তিশালী হয়েছে মস্তিষ্কও। তাই বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন, দৃষ্টিশক্তি এবং স্মৃতিশক্তি উন্নত করতে প্রত্যেকদিন একটি করে অ্যাভোক্যাডো খাওয়া দরকার।

Loading...