Breaking News
Home / অপরাধ জগত / অবশেষে জানা গেলো খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার নেতৃত্ব দেওয়া রিয়েলের আসল পরিচয় !
Loading...

অবশেষে জানা গেলো খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার নেতৃত্ব দেওয়া রিয়েলের আসল পরিচয় !

ফেনীতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার নেতৃত্ব দিয়েছেন ফেনীর শর্শদী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ওসমান গনী রিয়েল। ঘটনার সময় তোলা ছবি, স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে এবং রিয়েলের ফেসবুক একাউন্ট থেকে তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে।

খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার সময়ের ছবিতে দেখা যায়, সবুজ টি-শার্ট ও কালো প্যান্ট পরা রিয়েল হাতে ইট নিয়ে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। আহত সাংবাদিকরাও পরে ছবি দেখে রিয়েলকে চিহ্নিত করেছেন।

রিয়েলের ফেসবুক একাউন্টে দেখা যায়, ফেনী সদরের সংসদ সদস্য নিজামউদ্দিন হাজারীর সঙ্গে তার কাভার ছবিসহ একাধিক একান্ত ছবি রয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে নিচের ছবিটিতে ক্লিক করুন

এ বিষয়ে কথা বলতে রিয়েলের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়।

প্রসঙ্গত, কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির পরিদর্শনের উদ্দেশে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গুলশানের বাসভবন থেকে রওনা হন বিএনপি চেয়ারপারসন।

বিকেল সোয়া ৫টার দিকে গাড়িবহরটি ফেনীতে প্রবেশের সময় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনী সদরের ফতেহপুরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

এতে একাত্তর টিভির প্রতিবেদক শফিক আহমদ, বৈশাখী টিভির প্রতিবেদক গোলাম মোরশেদ ও ডিবিসি’র ক্যামেরাপারসন আপনসহ বেশ কয়েকজন আহত হন।

হামলায় একাত্তর টিভি, বৈশাখী টিভি, চ্যানেল আই ও ডিবিসি টিভি’র গাড়িসহ সাংবাদিক ও বিএনপি নেতাদের বহনকারী ৮-১০টি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। দুর্বৃত্তরা আহত সাংবাদিকদের মারধরও করে।

বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি বলেন, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ফেনীর মোহাম্মদ আলী বাজার, ফতেহপুর ও দেবীপুর এলাকায় গাড়িবহরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটিয়েছে।

শেখ হাসিনা আপনাকে কী দেবে?

একাত্তরে বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী যে ভূমিকা নিয়েছিলেন রোহিঙ্গা সংকটে শেখ হাসিনাকে সেই ভূমিকা পালন করতে হবে। এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

গতকাল শনিবার সকালে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া রোহিঙ্গাদের দেখতে ঢাকা থেকে কক্সবাজারের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার ঠিক আগ মুহূর্তে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ কথা বলেন।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে দা-কুমড়া সম্পর্কের দল বিএনপি। আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মহান হওয়ার আহ্বান জানানোর এমন মন্তব্য স্বভাবতই লুফে নেয় দেশের গণমাধ্যমগুলো। মন্তব্য করার ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই অনেক অনলাইন সংবাদমাধ্যমে প্রতিবেদন হয়। প্রতিবেদনগুলোর শিরোনাম ছিল অনেকটা এরকম ‘শেখ হাসিনাকে ইন্দিরা গান্ধীর ভূমিকা অবতীর্ন হতে বললেন ফখরুল’।

বেগম জিয়ার গাড়িবহর তখন মহাসড়কে। প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে মির্জা ফখরুলের মন্তব্য এবং অনলাইনে সংবাদ হওয়ার বিষয়টি বেগম জিয়ার কানে তুললেন তাঁরই সফরসঙ্গী বিএনপির এক নেতা। বেগম জিয়া যা শুনে যারপর নাই রাগান্বিত। মির্জা ফখরুলকে সঙ্গে সঙ্গে ঝাড়লেন তিনি।

মির্জা ফখরুলের ওপর ক্ষোভ ঝেড়ে বেগম জিয়া বলেন, ‘আপনি তো কখনো শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে একটি কথাও কোনোদিন বলেন না। এখন শেখ হাসিনাকে মহান করার পরিকল্পনায় নেমেছেন। আপনি বিএনপির মহাসচিব নাকি অন্যকিছু।’

বেগম জিয়া দলের মহাসচিবকে আরও বলেন, ‘এত যে শেখ হাসিনাকে এত গুণগান শুরু করেছেন, তিনি আপনাকে কী দেবেন? ’

মির্জা ফখরুল আত্মপক্ষ সমর্থন করে কোনো কথা বলেছেন কী না তা জানা যায়নি। তবে চেয়ারপারসনের সঙ্গে তাঁর কথোপকথনের পরবর্তী অংশ যে শ্রুতিমধুর ছিল না তা নিশ্চিত বলা যায়।

Loading...