Breaking News
Home / অপরাধ জগত / নাটোরে নিজের মেয়েকে ধর্ষণ করলেন বাবাঃ অতপর
Loading...

নাটোরে নিজের মেয়েকে ধর্ষণ করলেন বাবাঃ অতপর

নাটোরে মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে কামরুজ্জামান মাসুম (৩৬) নামে এক সাবেক সেনা সদস্যকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (৬ নভেম্বর) দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এবং শিশু আদালতের বিচারক মো. হাসানুজ্জামান এ রায় দেন।

দন্ডাদেশ প্রাপ্ত কামরুজ্জামান মাসুম জেলার বড়াইগ্রাম উপজেলার নটাবাড়িয়া গ্রামের সরদার মো. বয়াত রেজার ছেলে।

নাটোর নারী ও শিশু আদালতের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট শাজাহান কবির এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আসামী কামরুজ্জামান নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার কাদিরাবাদ সেনানিবাসের ইঞ্জিনিয়ার কোরে সৈনিক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

২০১৫ সালের ২২ জানুয়ারী দুপুরে আউট পাশ (নাইট পাশ) নিয়ে বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া কালিকাপুর ভাড়া বাড়িতে আসেন। এরপর সে তার মেয়ে মেহেরীন জামান মায়াকে দাদার বাড়ি নটাবাড়িয়ায় বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে মোটর সাইকেলে করে নেংকটাদহ এলাকায় নিয়ে জোরপুর্বক ধর্ষণ করে।

পরে মেয়ের মুখে ঘটনা শুনে মায়ার মা আঞ্জুমান আরা বাদী হয়ে স্বামী কামরুজ্জামানের বিরুদ্ধে মেয়কে ধর্ষণের অভিযোগে বড়াইগ্রাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলাটি বিচারের জন্য অত্র আদালতে প্রেরিত হলে সোমবার ওই রায় প্রদান করেন।

হাজার কোটি টাকার সম্পত্তি ফিরে পেতেই স্ত্রীকে হত্যা

সবজি ভর্তি ডালি মাথায় নিয়ে বিক্রি করেছেন শেখ মো. আব্দুল করিম। পরনের জামা পর্যন্ত কিনতে পারেননি। বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে পুরাতন জামা চেয়ে নিয়ে তিনি পরিধান করেছেন। ঘুমিয়েছেন ফুটপাতে মাথায় ইট দিয়ে। এটা ত্রিশ বছর আগের কথা। ধীরে ধীরে অবস্থার পরিবর্তন হতে থাকে করিমের।

এক পর্যায়ে শ্যামবাজারে পিঁয়াজ, রসুন, আদা ও আলুর আড়ত দেন। বিদেশ থেকে পিঁয়াজ আমদানি করে রীতিমত আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে যান। কাকরাইল এলাকায় তার ছয় তলা বিশিষ্ট দুইটি বাড়ি। পল্টনে পলওয়েল মার্কেটে তিন টি দোকান কিনেন। রাঙামাটিতে ১শ’ বিঘা জমির ওপর বাগান বাড়ির মালিক তিনি। জয়দেবপুরে রয়েছে ৯০ বিঘা জমি। এসব সম্পত্তি তিনি তার প্রিয়তমা স্ত্রী শামসুন্নাহারের নামে কিনেন। এরপর শুরু করেন চলচ্চিত্র প্রযোজনা।

ছোট ছেলে সাজ্জাদুল ইসলাম শাওনের নামে গড়ে তোলেন শাওন কথা চিত্র নামে প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠান থেকে ‘মাই নেম ইজ খান’, ‘বন্ধু তুমি শত্রু তুমি’ সহ ৫ টি চলচ্চিত্র প্রযোজনা করেন। এই চলচ্চিত্র প্রযোজনা করতে গিয়ে তার সঙ্গে পরিচয় হয় মডেলদের সঙ্গে। বিয়ে করেন মডেল শারমিন আক্তার মুক্তাকে। এর আগে ফরিদা নামে এক সুন্দরীকে তিনি বিয়ে করেন। কিন্তু প্রথম স্ত্রীর চাপাচাপিতে ফরিদাকে ডিভোর্স দেন।

তৃতীয় স্ত্রীকেও প্রথম স্ত্রীর চাপাচাপিতে তিনি ডিভোর্স দেন চার মাস আগে। পরে আবারও মৌলভীর কাছে গিয়ে তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে এক সঙ্গে বসবাস শুরু করেন। জীবনে কষ্ট করে অর্জন করা সম্পত্তি তার প্রথম স্ত্রীর নামে। এ কারণে তিনি পরিকল্পনা নেন কিভাবে প্রথম স্ত্রীকে সরিয়ে দেয়া যায়। চার মাস আগে রাঙামাটিতে তার বাগান বাড়িতে তৃতীয় স্ত্রীর সঙ্গে একটি পরিকল্পনা করে। সে অনুযায়ি মুক্তার ছোট ভাই আল আমিন ওরফে জনিকে দিয়ে এ হত্যার পরিকল্পনা নেয়া হয়।

কাকরাইলে জোড়া খুনের ঘটনায় গ্রেফতার হয়ে পুলিশের রিমান্ডে থাকা শেখ মো. আব্দুল করিমের কাছ থেকে এমনই তথ্য পেয়েছে তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। পুলিশের রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নাবিদ কামাল শৈবাল বলেন, এই জোড়া খুনের ঘটনায় করিম, মুক্তা ও জনিকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পারিবারিক বিরোধকে সামনে রেখেই তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এর মধ্যে সম্পত্তির মালিকানাও একটি কারণ রয়েছে। এই খুনের মোটিভ শনাক্ত হয়েছে। তাদের কাছ থেকে ঘটনার ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে।

Loading...