Breaking News
Home / সংস্কৃতি ও বিনোদন / সানি লিওনকে পেতে প্রস্তাব দিলেন শাকিব খান….! বিস্তারিত ভিডিও
Loading...

সানি লিওনকে পেতে প্রস্তাব দিলেন শাকিব খান….! বিস্তারিত ভিডিও

বলিউডের জনপ্রিয় নায়িকাদের একজন হলেন সানি লিওন। বলিউড মাতিয়ে এবার বাংলা ছবিতেও আসছেন এই নায়িকা। তাও আবার ছবির নায়ক যখন শাকিব খান!

আগামী নভেম্বরে শুরু হবে শাকিব খান অভিনীত নতুন ছবি ‘মামলা হামলা ঝামেলা’র শুটিং। উত্তম আকাশের এই ছবিতে শাকিবের নায়িকা বিদ্যা সিনহা মিম। ছবিতে থাকবে দুটি আইটেম গান। একটিতে পারফর্ম করবেন নায়িকা বিদ্যা সিনহা মিম।

তবে আরেকটি গানে পারফরম্যান্সের জন্য প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়ার কাছে সানি লিওনের নাম প্রস্তাব করেছেন নায়ক শাকিব খান। প্রযোজক সেলিম খানও রাজি এককথায়। তিনি বলেন, ‘সানি হলে আমার ছবির প্রচারণা বাড়বে অনেক। দর্শকও আকৃষ্ট হবে। তবে মুম্বাইয়ের ছবিতে সানি যে ধরনের পোশাক পরে থাকেন, আমরা তেমন পোশাক পরাব না। শালীনতা বজায় রেখেই গানের দৃশ্যায়ন করব। ’সেলিম আরো বলেন, ‘এ সপ্তাহেই কলকাতা যাবেন শাকিব।

সানির সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য তাকেই দায়িত্ব দিয়েছি। আমি বাজেট নিয়ে ভাবছি না, ভাবছি কিভাবে দর্শককে হলে টেনে আনা যায়। ’

সেক্স টয় বিক্রি বাড়ছে ঢাকায়, অধিকাংশ ক্রেতা

সরকারি নিষেধাজ্ঞা বা সেন্সরবোর্ডের কাঁচিতে আটকে নেই যৌনতা। কৈশোর পেরিয়ে এবার প্রাপ্তবয়স্ক হচ্ছে শহর। গোপনে হলেও ডিলডো বা প্লেজারপ্যাড শব্দগুলো এখন লাইফস্টাইলের প্রথম পাতায় উঠে এসেছে ঢাকাতেও। লাস ভেগাস, আমস্টারডাম বা রিও ডি জেনেইরোয়ের সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছে শহর ঢাকাও। বিশ্বায়নের যুগে পশ্চিমী দেশের সংস্কৃতিতে মিশেছে দেশ। বিদেশি ব্র্যান্ডের পোশাক পরে দেদারে সেলফিতে মাতছে বাঙালি। মুহূর্তে বদলে যাচ্ছে ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রামের প্রোফাইল। এই দ্রুত পরিবর্তনের যুগে রক্ষণশীল শহর ঢাকাতেও দ্বিগুণ হারে বাড়ছে সেক্স টয় ব্যবহারের চাহিদা।
পাশের দেশের দিল্লি, মুম্বাই অনেকদিন আগেই সেক্স টয় ব্যবহারে স্মার্ট সিটি। ঢাকার কতিপয় বাসিন্দা জানলেও তা হাতে পাওয়ার স্বপ্ন বোধহয় দেখতেন না। কিন্তু, গত কয়েকবছরে দেখা গেছে, ঢাকায় ব্যাপকহারে বাড়ছে সেক্স টয়ের চাহিদা। বিক্রেতা সংস্থাগুলোর দাবি, এই সেক্স টয়ের গ্রাহক সংখ্যার অধিকাংশরা হলেন ১৮ থেকে ৫০ বছরের মহিলা।

কী এই সেক্স টয় ?
এক কথায় আপেক্ষিকভাবে শারীরিক ও মানসিক কামনা মেটানোর ইলেকট্রনিক ডিভাইস। নারী ও পুরুষের যৌনাঙ্গের আকৃতির মতো হয় এই ডিভাইস।

এর মেয়াদ কতদিন ?
মোবাইলের মতোই এই ডিভাইসের ব্যাটারি আছে। চার্জ দিলেই তা ফের নতুন। তাই একবার কিনলে গ্রাহকদের মেয়াদ নিয়ে আর কোনও চিন্তা নেই।

সেক্স টয় কি আইনস্বীকৃত ?
এদেশে সেক্স টয় অবৈধ। খোলা বাজারে এর বিক্রির কোনও সরকারি অনুমতি নেই। কিন্তু অনলাইনে নির্দিষ্ট কিছু সাইটের মাধ্যমে অবাধে গ্রাহকদের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে বিভিন্ন সংস্থা। জাপান ও চিন থেকে এদেশের ব্যবসায়ীদের কাছে চলে আসছে সেক্স টয়। চলছে দেদার বিক্রিও।

ফ্লিপকার্ট, অ্যামাজন বা দেশের মূলস্রোতের অনলাইন শপিং সাইটে সেক্স টয় পাওয়া যায় না। কিছু সাইটে গেলে খুব অল্পদামে বিকোচ্ছে সেক্স টয়। দাম শুরু হয় ১০০ টাকা থেকে। ৫০০০ হাজার টাকা বা তার বেশি দামের সেক্স টয়ও পাওয়া যায় এই শপিং সাইটগুলোতে।

ঢাকায় খুব অল্প ব্যবসায়ী গোপনে সেক্স টয়ের ব্যবসা করছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এ শহরের একজন সেক্স টয় ব্যবসায়ী নিজের অভিজ্ঞতা জানালেন। তিনি বলেন, “এখন ডিলডোর বাজার অনেক চড়া। মহিলা গ্রাহকদের অর্ডারের সংখ্যা অনেক বেশি। মানুষের চিন্তাধারা বদলাচ্ছে, আধুনিক হচ্ছে। তাই টাকা দিয়ে যৌনসুখ কিনছে। পুরুষ গ্রাহকদেরও অর্ডার আসে। কিন্তু মহিলাদের তুলনায় তা অনেক কম।”

আমাদের প্রিয় শহর ঢাকা কীভাবে আর কোন কোন কারণে প্রাপ্তবয়স্ক হচ্ছে, কথাপ্রসঙ্গে তাও জানালেন তিনি। ঢাকার মতো মেট্রো সিটিতে জায়গার অভাব দীর্ঘদিনের সমস্যা। উচ্চবিত্ত হোক বা মধ্যবিত্ত পরিবার। কেউ যে তাঁর নিভৃতে প্রেম করবেন, তার কোনও উপায় নেই। চাকরিও নেই। ধার করে আপনি হোটেল ভাড়া করবেন ? জানাজানি হলে পারিবারিক সম্মানের ভয়। এদিকে মানসিক ও শারীরিক চাহিদা চড়চড় করে বাড়ছে। ছেলেদের ক্ষেত্রে একরকম ভয়, মেয়েদের ক্ষেত্রে সমস্যা অন্যরকম। তিনি জানালেন, যে মেয়ের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হবেন তাকে আপনি ঠিক কতটা বিশ্বাস করেন ? আগামী দিনে সম্পর্ক ভেঙে গেলে সে যে আপনাকে ধর্ষণের অভিযোগে ফাঁসাবে না, তার গ্যারান্টি কে দেবে ? মেয়েদের সমস্যা অন্যরকম। আপনার সঙ্গিনী গোপন মুহূর্তের ছবি তুলে রেখে আপনাকে ব্ল্যাকমেল করতে পারেন। সেই দায়ও বা কে নেবে ? এ তো গেল তরুণ প্রজন্মের কথা। দাম্পত্য জীবনেও বাড়ছে অশান্তি। স্বামী-স্ত্রী ১২-১৪ ঘণ্টা অফিস করে এসে ক্লান্ত। নিজের জীবনে কোনও সময় নেই। কোনও ছুটি নেই। কিন্তু শরীরের চাহিদা তো থেমে নেই। পরকীয়া সম্পর্কেও আছে নানারকম ঝুঁকি। তাই সব আশঙ্কার সমাধান হয়ে উঠেছে সেক্স টয়।

Loading...